Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

বিএনপির ১৩৯ নেতাকর্মীর আগাম জামিন

নিজস্ব প্রতিবেদক

সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২, ০৭:০৭ পিএম


বিএনপির ১৩৯ নেতাকর্মীর আগাম জামিন

মুন্সীগঞ্জে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় দায়ের করা দুই মামলায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, জেলা বিএনপির সদস্যসচিব কামরুজ্জামান রতনসহ ১৩৯ নেতাকর্মীকে আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। 

আদালতে হাজির হয়ে আবেদনের পর বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এ সময়ের মধ্যে তাদের সংশ্লিষ্ট অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আাইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, কায়সার কামাল, মো. কামাল হোসেন ও রোকনুজ্জামান সুজা।

জ্বালানি তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি এবং দলীয় নেতাকর্মী হত্যার প্রতিবাদে মুন্সিগঞ্জ শহরের কাছে মুক্তারপুরে গত ২১ সেপ্টেম্বর বিক্ষোভ কর্মসূচির আয়োজন করে জেলা বিএনপি। এ কর্মসূচি চলার সময় সেখানে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষের মধ্যে গুলিতে শাওন ভূঁইয়া ও বিএনপির সমর্থক জাহাঙ্গীর মাদবর (৩৮) গুরুতর আহত হন। পরদিন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান যুবদল নেতা শাওন ভূঁইয়া। এদিন সংঘর্ষের ঘটনায় দলটির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়।

একটি মামলা করেন মুন্সিগঞ্জ সদর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মাইনউদ্দিন। সরকারি অস্ত্র-গুলি লুট ও মোটরসাইকেল পোড়ানোর অভিযোগে ৩১৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ৭০০ থেকে ৮০০ জনকে আসামি করে এ মামলা করেন তিনি। 

মামলায় প্রধান আসামি করা হয় জেলা বিএনপির সদস্য সচিব কামরুজ্জামান রতনকে। ২৪ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে এ মামলায়।

এ ছাড়া মুক্তারপুরে শ্রমিক লীগের কার্যালয় ভাঙচুর, ককটেল বিস্ফোরণ ও মারধর করে গুরুতর জখম করার অভিযোগে মামলা করেন মুক্তারপুর বাগবাড়ি এলাকার বাসিন্দা ও শ্রমিক লীগের নেতা আবদুল মালেক। 

এ মামলায় সদর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মহিউদ্দিন আহম্মেদকে প্রধান আসামি করা হয়। মামলায় ৫২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১৫০ থেকে ২০০ জনকে আসামি করেন তিনি। এ মামলায় দুজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

টিএইচ

Link copied!