Amar Sangbad
ঢাকা সোমবার, ০৪ মার্চ, ২০২৪,

২০ টন আবর্জনার স্তূপ ঘেঁটে খুঁজে পেলেন বিয়ের আংটি

বাংলা প্রেস, নিউইয়র্ক

বাংলা প্রেস, নিউইয়র্ক

ডিসেম্বর ২, ২০২৩, ১০:৪২ এএম


২০ টন আবর্জনার স্তূপ ঘেঁটে খুঁজে পেলেন বিয়ের আংটি

অবশেষে ২০ টন আবর্জনার স্তূপ ঘেঁটে বিয়ের আংটি খুঁজে পেলেন এক দম্পতি। অসাবধানবশত এক মার্কিন নারীর বিয়ের আংটির জায়গা হয় আবর্জনার স্তূপে।

গতবুধবার নিউ হ্যাম্পশায়ারের উইনডহ্যাম ট্রান্সফার স্টেশনে ফোন দিয়ে ওই নারী জানান, তাঁর বিয়ের আংটি ঘটনাক্রমে বাড়ির ময়লার সঙ্গে আবর্জনার স্তূপে চলে এসেছে। সৌভাগ্যক্রমে স্টেশনের কর্মীরা ২০ টন ময়লার মাঝখান থেকে খুঁজে বের করেন ওই আংটিটি। এসব তথ্য জানা যায় মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক পোস্টের এক প্রতিবেদনে। যুক্তরাষ্ট্রের বাংলা  সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস এ খবর জানিয়েছে।

উইনডহ্যাম ট্রান্সফার স্টেশনের কাজ উইনডহ্যাম শহরের বাসিন্দাদের ফেলা ময়লা স্থানান্তর ও পুনর্ব্যবহার উপযোগী করা। স্টেশনের জেনারেল সার্ভিসেস বিভাগের পরিচালক ডেনিস সেনিবালডি জানান, নারীটি কিছু তথ্য দিয়েছিলেন। কোন সময় তাঁর স্বামী ময়লা ফেলে গিয়েছিলেন। ময়লার থলেতে কী কী ছিল, কোন ধরনের গাড়ি ভদ্রলোক ব্যবহার করেছেন ইত্যাদি।

কর্মীরা তারপর আংটিটি খুঁজে বের করতে সেখানে নজরদারির জন্য রাখা ক্যামেরাগুলোর সাহায্য নেন। ‘ভদ্রলোক কখন এখানে এসেছিলেন, ঠিক কোন সময় ময়লাটি ছুড়ে ফেলেন এবং আবর্জনার মধ্যে কোথায় ওটা আছে সেটা আমরা শনাক্ত করতে পারি।’ বলেন সেনিবালডি।

‘এটি ট্রেইলারের মধ্যে আবর্জনার ১২ ফুট নিচে ছিল। ব্যাগটি খুঁজে পেতে আমাদের ওই জায়গা পর্যন্ত ময়লা সরাতে হয়। পুরো ট্রেইলারে আনুমানিক ২০ টন ময়লা ছিল।’

আংটিটি আংশিকভাবে লাল রঙে ঢাকা ছিল বলে জানা গেছে। ময়লার থলে থেকে এটি পড়ে গিয়েছিল।

এটি নিয়ে দুই বছরের মধ্যে তৃতীয়বারের মতো কোনো বিয়ের আংটি উইনডহ্যামের আবর্জনার স্তূপে হারাল। কর্মীরা প্রত্যেকটিই খুঁজে বের করেন। প্রায় এক বছর আগে ঘটেছিল শেষবারের মতো।’

সেনিবালডি পাতার স্তূপে একটি নির্দিষ্ট পাতার সন্ধান করার সঙ্গে আংটির সন্ধানের তুলনা করেন। কারণ, সেখানে সবকিছু একই রকম দেখায়। ‘আমি আংটিটি পরিষ্কার করে তাঁকে (ওই নারীকে) ডাকি।’ বলেন সেনিবালডি, ‘বুধবার তাঁর হৃদয় ভেঙে গিয়েছিল, কিন্তু শুক্রবারে আনন্দে ভেসে যান তিনি।’

এআরএস

Link copied!