Amar Sangbad
ঢাকা শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪,

‘মানব সভ্যতা ধ্বংস করে দিতে পারে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা’

মো. মাসুম বিল্লাহ

এপ্রিল ১৮, ২০২৩, ০৪:২০ পিএম


‘মানব সভ্যতা ধ্বংস করে দিতে পারে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা’

মার্কিন ধনকুবের এবং টুইটারের মালিক ইলন মাস্ক কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে আবারও ভয়াবহ আশঙ্কার কথা জানালেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, মানব সভ্যতা ধ্বংস করার মতো ক্ষমতা রয়েছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার। যদিও তিনি নিজেই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা’র উন্নয়নে প্রচুর বিনিয়োগ করে চলেছেন। এছাড়া বাজারে গুজব রয়েছে যে, তিনি নিজেই চ্যাটজিপিটি’র মতো নতুন কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে আসতে চলেছেন।

এ খবর দিয়েছে সিএনএন। খবরে জানানো হয়, বিখ্যাত মার্কিন হোস্ট টাকার কার্লসনের সঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারে অংশ নিয়েছিলেন মাস্ক। এতে তিনি বলেন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা অত্যন্ত বিপজ্জনক হতে পারে। যদি কোনো গাড়ি বা বিমান কোম্পানি যদি ঠিকভাবে তাদের পণ্য নির্মাণ না করে তাহলে যে বিপদ হতে পারে, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ক্ষেত্রেও বিষয়টি একই। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ক্ষমতা আছে গোটা মানব সভ্যতাকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাওয়ার। সাক্ষাৎকারটি দুই কিস্তিতে সোম ও মঙ্গলবার রাতে প্রচারিত হবে।

তবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে মাস্কের এমন সাবধান বানী এই প্রথম নয়। তিনি বরাবরই এ নিয়ে বিশ্ববাসীকে হুঁশিয়ার করে আসছেন।

এছাড়া ৬ মাসের জন্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উন্নয়ন বন্ধ রাখতে খোলা চিঠিও দিয়েছেন তিনি। যদিও টেক জায়ান্ট গুগল ও মাইক্রোসফট কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা দিন দিন আরও জোরদার করে চলেছে। এরইমধ্যে চ্যাটজিপিটি বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। এটিকে টেক্কা দিতে বাজারে নিজেদের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা চ্যাটবট বার্ড আনতে যাচ্ছে গুগল। পিছিয়ে থাকতে চাইছে না চীনও। তারাও নিজেদের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বাজারে আনার ঘোষণা দিয়েছে। তবে মাস্কের ভাষায়, এই প্রতিযোগিতা ‘নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে’।

সোমবার তিনি জানান, মার্কিন সরকার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে যে কড়াকড়ি আরোপ করতে যাচ্ছে তা তিনি সমর্থন করেন। যদিও ‘নিয়ন্ত্রিত’ হওয়া কোনো দারুণ জিনিস না তবুও এখনই না থামালে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা হয়ত আর কখনোই নিয়ন্ত্রণে রাখা যাবে না। মাস্ক একটি নিয়ন্ত্রক সংস্থা প্রতিষ্ঠার উপরে জোর দেন। মাস্ক নিজেই যদিও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সর্বোচ্চ ব্যবহার করছেন। তার গাড়ি কোম্পানি টেসলা রাস্তায় চলতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ওপরে ব্যাপক মাত্রায় নির্ভর করে। এছাড়া চ্যাটজিপিটি’র মূল কোম্পানি ওপেনএআই প্রতিষ্ঠায় বিনিয়োগ করেছিলেন মাস্ক নিজেও।

এদিকে টাকার কার্লসনের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে নিজের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা কোম্পানি ‘ট্রুথজিপিটি’ তৈরির ঘোষণা দিয়েছেন মাস্ক। তিনি বলেন, আমরা নিজেরাই নতুন কিছু তৈরির চেষ্টা করছি, আমি যার নাম দিয়েছি ট্রুথজিপিটি। এই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সবথেকে বেশি সত্য তুলে ধরবে বলেও দাবি করেন তিনি। মাস্ক বলেন, আশা করছি ভবিষ্যতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার খারাপের থেকে ভালই বেশি হবে।

আরএস

Link copied!