Amar Sangbad
ঢাকা রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪,

হরতাল অবরোধে বাজার নিয়ন্ত্রণ ও ইন্টারনেট সেবা স্বাভাবিক রাখার দাবি

মো. মাসুম বিল্লাহ

অক্টোবর ৩০, ২০২৩, ০৬:৩৪ পিএম


হরতাল অবরোধে বাজার নিয়ন্ত্রণ ও ইন্টারনেট সেবা স্বাভাবিক রাখার দাবি

চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতায় হরতাল-অবরোধের মধ্যে দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক, বাজারে সরবরাহ স্থিতিশীল রাখার পাশাপাশি টেলিযোগাযোগ ইন্টারনেট সেবা স্বাভাবিক রাখাতে হবে।

আজ সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এমন দাবি তোলেন বাংলাদেশ সাধারণ নাগরিক সমাজ ও বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ।

বিবৃতিতে বলা হয়, টেলিযোগাযোগ ও ইন্টারনেট প্রযুক্তি সেবা দানকারী সকল প্রতিষ্ঠানকে হরতাল অবরোধের আওতার বাইরে রাখতে হবে।

সংগঠন দু‍‍`টির পক্ষে যৌথ বিবৃতিতে মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতে সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা যখন অসহনীয় হয়ে উঠেছে ঠিক তখনই নতুন করে যুক্ত হয়েছে হরতাল অবরোধের মত রাজনৈতিক অস্থিরতার কর্মসূচি। হরতালের আগের দিন অর্থাৎ সাতাশ অক্টোবর যেখানে বাজারে দেশে পেঁয়াজ এর মূল্য ছিল ৯০ থেকে ১০০ টাকা সেটি বেড়ে হয়েছে দুদিনের মাথায় ১৩০ টাকা। ভারতীয় পেঁয়াজ যেখানে ছিল ৬০ টাকা সেটি বেড়ে এখন ৮০ থেকে ৯০ টাকা। গোল আলু যেখানে ৪৫ থেকে ৫০ টাকা ছিল সেটি আজকের বাজারে ৬৫ থেকে ৭০ টাকা প্রতি কেজি। প্রতিটি সবজির দাম ১০০ টাকার উপর। এমন পরিস্থিতিতে আগামীকাল থেকে তিন দিনের জন্য রাজনৈতিক অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করে এসে বিরোধী দল। এই সুযোগে অসৎ মজুদদার, কালোবাজারী ও সিন্ডিকেটকারীরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠতে পারে। বাজারের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে সাধারণ মানুষের সাধ্যের বাইরে চলে যেতে পারে বাজার। এ অবস্থায় বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকার ভোক্তা অধিদপ্তর, বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন, ট্যারিফ কমিশন, নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, সিটি কর্পোরেশন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সমন্বয়ে যৌথ টাস্ক গঠন করে ২৪ ঘণ্টা বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এতে বাজার স্বাভাবিক পর্যায়ে রাখা সম্ভব না হলে জনগণের দুর্ভোগ আরো চরম পর্যায়ে পৌঁছে যাবে এতে কোন সন্দেহ নেই।

সেই সাথে মানুষের এই হরতাল অবরোধের মধ্যে নিরাপত্তার খাতিরে ঘরে বা অফিসে বসে দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য দরকার একটি নিরবিচ্ছিন্ন টেলিযোগাযোগ  ও ইন্টারনেট সেবা। সেই সাথে ই-কমার্স ও প্রযুক্তির সেবাকে হরতাল অবরোধের আওতার বাইরে রাখা। 

এদিকে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, রাজনৈতিক দলগুলির কর্মসূচি টেলিযোগাযোগ, ইন্টারনেট ও প্রযুক্তি সেবা-সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে হরতাল অবরোধের আওতার বাইরে রাখার জন্য আমরা আহ্বান জানায়।

আরএস

Link copied!