Amar Sangbad
ঢাকা বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২৪,

‘চট্টগ্রাম হচ্ছে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের সিলিকন সিটি’

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২৪, ০৭:২৯ পিএম


‘চট্টগ্রাম হচ্ছে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের সিলিকন সিটি’

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, চট্টগ্রাম হচ্ছে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের সিলিকন সিটি। মন্ত্রনালয়ের আওতায় যে সকল সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান রয়েছে, সেই সকল প্রতিষ্ঠানে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ ১বিলিয়ন ডলারের বেশি আকর্ষণ করতে চান এবং তার অর্ধেক চট্রগ্রাম থেকে পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আজ চট্টগ্রামে “৫ম চট্টগ্রাম আইটি ফেয়ার ২০২৪“-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

এই অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী পলক চান্দগাও এ শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার এর ৫০০০ স্কয়ার ফিট জায়গা স্টার্ট-আপদের জন্য দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিকে দেওয়ার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, যে সকল স্টার্ট-আপ জায়গা বরাদ্দ পাবে, তারা প্রথম ৬ মাস ফ্রিতে কাজ করার সুযোগ পাবে। পরবর্তীতে পারফর্মমেন্স মনিটরিং কমিটির মাধ্যমে যাচাইপূর্বক আরো ৬ মাস ফ্রিতে কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ইপিজেড, ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার, হাই-টেক পার্কে যদি কোন ফ্রিল্যান্সার উদ্যোক্তা হতে পারে তাহলে তারা অন্যদেরও কর্মসংস্থান সুযোগ করে দিতে পারবে। তিনি বলেন, প্রয়োজনে স্টার্টআপ বাংলাদেশ কোম্পানি লিমিটেডেরে পক্ষ থেকে ৫ লাখ থেকে ৫ কোটি পর্যন্ত ইকুয়েটি ইনভেস্টমেন্টের সুযোগ থাকবে, এর সবকিছুই নির্ভর করছে রাইট সিলেকশন, রাইট মনিটরিং, রাইট সুপারভিশন ও ইনকিউবেশন এর উপর।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, চট্রগ্রাম থেকে কোন মেধাবী, উদ্ভাবনী তরুণ-তরুণী যদি উদ্যোক্তা হতে চায়, তাদের যত ধরনের সুযোগ লাগবে সেটা সরকার, একাডেমিক ও ইন্ডাস্ট্রি একসাথে মিলে তৈরি করবে। তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের আইসিটি খাত থেকে ১ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার রফতানি আয় হচ্ছে এবং ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে। এ খাতে আগামী পাঁচ বছরে ৫ বিলিয়ন ডলার রফতানি আয় এবং আরও নতুন ১০ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে তিনি জানান।  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্রগ্রামে ইতোমধ্যে তিনটি উপহার দিয়েছেন উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রথমত ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে চুয়েটে ‘শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর’ সেন্টার নির্মাণ করা হয়েছে যাতে ১০টি বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানকে, এছাড়া ২৫ টি স্টার্টআপ কোম্পানিকে ফ্রি স্পেস প্রদান করা হয়েছে। দ্বিতীয়ত, চান্দগাও এ শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার (৮ আইটি প্রকল্প) ও তৃতীয়টি চান্দগাও এ নলেজ পার্ক (১২ আইটি প্রকল্প)।      

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি সভাপতি ওমর হাজ্জাজ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সোসাইটি অব চিটাগাং আইটি প্রফেশনালস (এসসিআইটিপি) এর সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ ফরিদ।

এইচআর

Link copied!