Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০২৪,

কাজী মো. সালাউদ্দিন

১০ জুন থেকে শুরু হচ্ছে নারী ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ

মো. মাসুম বিল্লাহ

মে ২৯, ২০২৩, ০৮:২৯ পিএম


১০ জুন থেকে শুরু হচ্ছে নারী ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ

সোমবার (২৯ মে) বিকেলে জরুরি সভায় বসেছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটি। যেখানে একমাত্র এজেন্ডা ছিল নারী ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ।

সভার পর বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেন, ‘আজ আমরা লিগ শুরুর একটা তারিখ ঠিক করেছি। এই লিগটার অনেক চাহিদা। মেয়েদের, গণমাধ্যমের। সিদ্ধান্ত নিয়েছি লিগটা করবো। ১০ জুন লিগ শুরু হবে। ১২ দিনের লিগ। ফাইনালসহ ১৩টা ম্যাচ। এ সময় করতে না পারলে ফিফা উইন্ডো থাকবে না, বিদেশি খেলোয়াড় পাওয়া যাবে না। এজন্য এ সময়ের মধ্যেই করবো। এই লিগে অংশ নেবে চারটি দল।’

সভার পর বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিনের কাছে নারী ফুটবলের প্রধান কোচ ছোটনের পদত্যাগের পর তাদের সিদ্ধান্ত কী? জানতে চাওয়া হয়েছিল। বাফুফে সভাপতি বলেন, ‘তিনি (ছোটন) আজই আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগ করেছেন। আমরা আগামী বোর্ড সভায় এ বিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো।’

ক্যাম্প থেকে খেলোয়াড় চলে যাচ্ছেন, কোচ পদত্যাগ করেছেন। কেন এমন হচ্ছে? এনিয়ে বাফুফে সভাপতির বক্তব্য, ‘একজন যাবেন, একজন আসবেন। ম্যারাডোনা নেই, মেসি আসছেন। আবার মেসি চলে যাবেন। এটাই তো নিয়ম। এটা একটা প্রক্রিয়া। মেয়েরা যারা গিয়েছে, তাদের ব্যক্তিগত বিষয় তো আছেই।’

‘কোচ রিজাইন (পদত্যাগ) করবেন। আরেকজন আসবেন। তিনি আবার রিজাইন করবেন। কিংবা স্যাক হবে। গোটা পৃথিবী এভাবেই তো চলছে’- যোগ করেন বাফুফে প্রধান।

লিগের আয়োজক কে-স্পোর্টসের সঙ্গে আগের দেনা-পাওনা নিয়ে টানাপোড়েন ছিল বাফুফের। বাফুফের মধ্যেই একটা পক্ষ চেয়েছিল কে-স্পোর্টসকে যেন এই দায়িত্ব দেওয়া না হয়।

তবে বাফুফের জরুরি সভায় কে-স্পোর্টসকে মাত্র এক আসরের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমরা আপাতত এক বছরের জন্য পরীক্ষামূলক কে-স্পোর্টসকে অনুমতি দিয়েছি। যদি দেখি লিগটা সফলভাবে হয়েছে তাহলে পাঁচ থেকে দশ বছরের জন্য দরপত্র করে কোনো প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেবো।’

এই লিগের সবকিছুই করবে কে-স্পের্টস। প্রতিষ্ঠানটি বাফুফেকে দেবে ২০ লাখ টাকা। এই টাকা নারী অনূর্ধ্ব-১৭ দলের খেলোয়াড়দের দেওয়ার কথা বলেছেন বাফুফে সভাপতি, ‘আমি বোর্ডকে অনুরোধ করেছি এই টাকা অনূর্ধ্ব-১৭ মেয়েদের দলকে দিতে। কারণ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ওই দলকে আমরা আর্থিক সুবিধা দিতে পারিনি।’

Link copied!