Amar Sangbad
ঢাকা রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

সিলেটে টেকসই মৎস্যখাত শীর্ষক ৩ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক

সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২২, ০৫:২৩ পিএম


সিলেটে টেকসই মৎস্যখাত শীর্ষক ৩ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

সিলেটে টেকসই মৎস্যখাত শীর্ষক ৩ দিনব্যপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু হয়েছে। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের আয়োজনে দ্বিতীয়বারের মত অনুষ্ঠিত হচ্ছে সম্মেলনটি।  সম্মেলনের এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে মৎস্যখাত’।

এবারের সম্মেলনে বাংলাদেশ, নেপাল, ভারত, ডেনমার্ক, মালেয়শিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, কোরিয়া সহ প্রায় দশটি দেশ থেকে তিন শতাধিক গবেষক অংশ নিয়েছে। তিন দিনব্যাপী সম্মেলনে মৎস্যখাত সংক্রান্ত ১৯৩ টি গবেষণার ফলাফল উপস্থাপন করা হবে।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) সকাল ১০ টায় সিলেটের সুবিদবাজারের খান‍‍`স প্যালেস সম্মেলন কেন্দ্রে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় কুন্ড’র সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন সিকৃবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মতিয়ার রহমান হাওলাদার। এসময় সম্মেলনের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও বাংলাদের পরিকল্পনা কমিশনের সাবেক সদস্য ইমিরেটাস অধ্যাপক ড. এম এ সাত্তার মন্ডল।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মলা মাছ ও জলজ খাদ্যের মাধ্যমে অপুষ্টি দূরীকরণে অসামান্য অবদান রেখে বিশ্ব খাদ্য পুরষ্কার পাওয়া বিজ্ঞানী ওয়ার্ল্ডফিশের পুষ্টি ও জনস্বাস্থ্য বিষয়ক গ্লোবাল লিড ড.শকুন্তলা হরাকসিংহ থিলস্টেডকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সম্মাননা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও সম্মেলনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মতিয়ার রহমান হাওলাদার। তিনি বলেন, মৎস্যখাত আমাদের জাতীয় অর্থনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এছাড়াও বাংলাদেশ সরকার এই খাতে বিশেষ গুরুত্ব প্রদান করেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। মৎস্য খাত শীর্ষক এই সম্মেলন পরবর্তীতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলেও জানান তিনি।

মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন এবং টেকসই মৎস্যখাত শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনারের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডঃ মৃত্যুঞ্জয় কুণ্ড বলেন, আমরা ২০১৯ সালে প্রথম সম্মেলন শুরু করি। ২০১৯ সালের ১ম সম্মেলনে সম্মেলনে ৩৫০ জন গবেষক অংশগ্রহণ করেছিল এবং দুই শতাধিক গবেষণা উপস্থাপন করা হয়েছিল। করোনার কারণে ২০২০ সালে সম্মেলনটি করা সম্ভব হয়নি বলেও উল্লেখ করেন। এসময় তিনি আরো বলেন, আজ টেকসই মৎস্যখাত বিষয়ক দ্বিতীয় সম্মেলন শুরু হয়েছে। তিন দিনব্যাপী এই সম্মেলন চলবে। 
এবারের সম্মেলনে প্রায় দুশোটি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে এবং বাইশটি গবেষণা পোস্টার প্রদর্শিত হবে বলে জানান তিনি।

অধ্যাপক কুন্ড বলেন, এসডিজিতে কিভাবে মৎস্যখাত অবদান রাখতে পারে সেই বিষয়কে এবার গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এবারে সম্মেলনে এটিই আমাদের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়। তিনি বলেন, দুই দিনে ১৬ টি অংশে ভাগ করে গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপনা গ্রহণ করা হবে। এসডিজি টার্গেট পূরণ করতে মৎস্যখাত কিভাবে ভূমিকা রাখবে তা সবার উপস্থাপন করবে।

বিশ্ব খাদ্য পুরষ্কার পাওয়া বিজ্ঞানী ওয়ার্ল্ডফিশের পুষ্টি ও জনস্বাস্থ্য বিষয়ক গ্লোবাল লিড ড.শকুন্তলা হরাকসিংহ থিলস্টেড তার বক্তব্যে দেশীয় ছোট মাছের গুণাগুনের কথা ব্যক্ত করে বলেন, দেশীয় মাছের মধ্যে মলা মাছ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ। বাংলাদেশ পুষ্টি ঘাটতি পূরণে দেশীয় মাছ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে জানান তিনি। এছাড়াও এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মলা মছ বাংলাদেশ, ভারত ছাড়াও কম্বোডিয়া এবং মায়ানমারের পাওয়া যায়।

সম্মেলনের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপক বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশনের সাবেক সদস্য এমিরিটাস অধ্যাপক ড. এম এ সাত্তার মন্ডল বলেন, পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবারের মধ্যে সুলভ মূল্যে যেটি পাওয়া যায় তা মাছ। এ সময় তিনি একটি বিষয়কে গুরুত্ব সহকারে আলোকপাত করেন তা হলো কৃষক পর্যায়ে উৎপাদন বৃদ্ধি। তিনি দাবি করেন কৃষক পর্যায়ে উৎপাদন বাড়াতে আমরা সক্ষম হয়েছি।

এ সময় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খঃ মাহবুবুল হক, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ, ওয়ার্ল্ডফিশের আঞ্চলিক পরিচালক ক্রিস্টফার রোজ প্রাইস, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ সিস্টেমের পরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ সায়েম উদ্দিন আহম্মদ ও সম্মেলন আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. এম এম মাহবুব আলম।

এছাড়াও শনিবার (১৭ আগস্ট) বিকাল ৫ টায় সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় কুন্ড’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এর। যেখানে প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মতিয়ার রহমান হাওলাদার, বিশেষ অতিথি হিসেবে সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাফিজ আহমেদ মজুমদার সহ উপস্থিত  থাকবে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, ভারতীয় সহকারী হাই কমিশন, সিলেট এর সহকারী হাই কমিশনার নিরাজ কুমার জয়সওয়াল, বাংলাদেশ সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক সাইদ মাহমুদ বেলাল হায়দার, ডিপ সি ফিশার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনাম চৌধুরী ও সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ সিস্টেমের পরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ সায়েম উদ্দিন আহম্মদ। এসময় স্বাগত বক্তব্য রাখবেন সম্মেলন আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. এম এম মাহবুব আলম।

এর পর রবিবার (১৮ আগস্ট) সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশী ও বিদেশ থেকে আগত গবেষক ও অতিথিবৃন্দ সুনামগঞ্জের মাদার ফিশারিজ খ্যাত প্রাকৃতিক জলাভূমি টাঙ্গুয়ার হাওর ভ্রমণ করবেন।
 

Link copied!