Amar Sangbad
ঢাকা রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯

নীলফামারীতে প্রশংসায় ভাসছেন জেলা পুলিশ সুপার

নীলফামারী প্রতিনিধি

নীলফামারী প্রতিনিধি

ডিসেম্বর ১, ২০২২, ০৫:৪৪ পিএম


নীলফামারীতে প্রশংসায় ভাসছেন জেলা পুলিশ সুপার

নীলফামারীতে চালু হলো “নো হেলমেট নো ফুয়েল” প্রশংসায় ভাসছেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান। পেট্রোল পাম্পে হেলমেট ছাড়া কেউ মোটরসাইকেলে তেল নিতে না পারে; কিংবা মোটরসাইকেলে দুইয়ের অধিক চলাচল করতে না পারে: এ কর্মসূচী বাস্তবায়নে জেলার ১৬টি রুটে’র বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ও পেট্রোল পাম্প গুলোতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ কর্মসূচী পর্যবেক্ষণে বৃহস্পতিবার (পহেলা ডিসেম্বর)দুপুরে বিভিন্ন পেট্রোল পাম্প পরিদর্শন করেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তফিজুর রহমান।

মোটরসাইকেল আরোহী মশিউর রহমান যাদু বলেন, মোটরসাইকেল চালানোর সময় হেলমেট  রাস্তার ধুলা-বালা, থেকে শুরু করে সড়ক দুর্ঘটনায় আমাদের অনেক উপকারে আসে। জেলা পুলিশ সুপারের উদ্যোগকে আমি সচেতন নাগরিক হিসেবে স্বাগত জানাই এবং এ-ই কার্যক্রম চালু রাখার অনুরোধে করেন।

রকিবুল আলম ফিলিংস স্টেশনের ম্যানেজার বলেন, আমার পেট্রোল পাম্পে হেলেমেড ছাড়া কারো কাছে পেট্রোল-অকটেন বিক্রি করব না। এছাড়াও হেলমেট ছাড়া পেট্রোল বিক্রি না করা  জেলার মানুষ হিসাবে আমাদের দায়িত্বের মধ্যেই পড়ে। আমাদের পেট্রোল পাম্প ও কর্মচারীদের নিরাপত্তার জন্য জেলা পুলিশ সুপার সবসময় তৎপর রয়েছেন।

নীলফামারী জেলা পুলিশ সুপারের এই মহতি উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি প্রকৌশলী এসএম সফিকুল আলম ডাবলু বলেন নিরাপদ সড়ক ও সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধের জন্য হেলমেট খুবেই গুরুত্বপূর্ণ। এই কার্যক্রম যেন অব্যাহত থাকে।

এ পরিদর্শনে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী সদর থানা’র অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রউফ, ওসি (তদন্ত) মুক্তারুল আলম, টি-আই সেলিম আহম্মেদ, এসআই সাজ্জাদ প্রমুখ।

এর আগে গত ২৭ নভেম্বর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে জেলার ৩৯টি পেট্রোল পাম্পের মালিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। এ মতবিনিময় সভায় পাম্প মালিকদের বলেন, হেলমেট ছাড়া কেউ যেন মোটরসাইকেলে তেল নিতে না পারে : এ বিষয়ে পাম্প মালিকদের সহযোগিতা কামনা করেন জেলা পুলিশ সুপার।

এসএম

Link copied!