Amar Sangbad
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪,

‘মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে কাদেরিয়া বাহিনীর বীরত্ব স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে’

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

মার্চ ৩০, ২০২৪, ০৮:৫৫ পিএম


‘মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে কাদেরিয়া বাহিনীর বীরত্ব স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে’

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক বলেছেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে কাদেরিয়া বাহিনীর নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।

বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে টাঙ্গাইলের কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন ‘কাদেরিয়া বাহিনী’ সৌর্য-বীর্য ও অসীম সাহসিকতার জন্য হানাদার বাহিনীর কাছে মূর্তিমান আতঙ্ক হয়ে ওঠে।

মন্ত্রী বলেন, আমরা ভারতে গিয়ে ট্রেনিং নিয়ে অস্ত্র হাতে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছি। আর কাদেরিয়া বাহিনীর বীর মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে যুদ্ধ করেছে। ট্রেনিং নিয়ে অস্ত্র হাতে যুদ্ধ করা আর শত্রুর অস্ত্র কেড়ে নিয়ে যুদ্ধ করা কিন্তু এক বিষয় নয়।

শনিবার বিকালে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা বানিয়াফৈরে মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতীয় ছাত্রসেনা অবতরণের স্থানে স্মৃতিফলক ও মুক্তিযুদ্ধ কমপ্লেক্স নির্মাণে জায়গা পরিদর্শনে এসে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান যারা মানতে পারে না তারাই ভারতীয় পণ্য বর্জনের স্লোগান দেয়। যেহেতু পেঁয়াজের দাম কমেছে, জিনিসপত্রের দাম কমেছে, মানুষ একটু স্বস্তিতে আছে- এখন তারা ভারতের পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে। দেশের মানুষ ভালো থাকুক বিএনপি তা চায় না।

এর আগে মন্ত্রী শনিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের আশেকপুর বাইপাসে কাদেরিয়া বাহিনীর জাদুঘরের স্থান পরিদর্শনে এসে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন।

মহান মুক্তিযুদ্ধে টাঙ্গাইলের কমান্ডার ইন চিফ ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্যদেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. ছানোয়ার হোসেন এমপি, যুগ্ম-সম্পাদক তানভীর হাসান ছোট মনির এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক খান আহমেদ শুভ এমপি, জেলা প্রশাসক মো. কায়ছারুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের) প্রমুখ।

ইএইচ

Link copied!