Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯

টাঙ্গাইলে অর্থ আত্মসাৎ মামলায় পিতা-পুত্র কারাগারে

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

আগস্ট ১৬, ২০২২, ১২:৫৭ পিএম


টাঙ্গাইলে অর্থ আত্মসাৎ মামলায় পিতা-পুত্র কারাগারে

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার বল্লা গ্রামের শাড়ী কাপড়ের ব্যবসায়ীর অর্থ আত্মসাৎ মামলায় পিতা-পুত্রকে পুলিশ আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

আটককৃতরা হলেন, বল্লা ইডেনপাড়া গ্রামের মৃত চান মিয়ার ছেলে মোস্তফা আশরাফী(৬০) ও তার পুত্র লিটন আশরাফী (৩০)।

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার টেঙ্গুরিয়া গ্রামের মৃত নুরুজ্জানের ছেলে কামরুজ্জামান (৪৫) এর সাথে পার্শ্ববর্তী বল্লা ইডেনপাড়া গ্রামের মোস্তফা আশরাফী ও তার ছেলে লিটন আশরাফী সম্প্রতি ব্যবসায়ীক সূত্রে তাঁতের শাড়ী নগদ ও বাকিতে ক্রয় করেন। ব্যবসায়ীক লেনদেনের এক পর্যায়ে কামরুজ্জামানের কাছ থেকে মোস্তফা আশরাফী ও তার ছেলে লিটন আশরাফী ৮ লাখ ৭৬ হাজার ৪শত টাকার তাঁতের শাড়ী বাকি নেন। বকেয়া টাকার জন্য ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান বার-বার তাগিদ দিলে দেই দিচ্ছি বলে কালক্ষেপন করতে থাকে তারা। স্থানীয় মাতাব্বরদের নিয়ে পাওয়া টাকার চাপ দিলে ওই পাওয়া টাকার কথা অস্বীকার করেন মোস্তফা ও লিটন আশরাফী। পরে ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান বাদি হয়ে পিতা-পুত্রকে আসামি করে গত ১১ আগস্ট কালিহাতী থানায় একটি মামলা (নং ০৬,ধারা ৪০৬/৪২০) দায়ের করেন। ওই মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযুক্ত পিতা-পুত্রকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একাধিক তাঁতের শাড়ী ব্যবসায়ীরা জানান, আটককৃত মোস্তফা আশরাফী ও লিটন আশরাফী দীর্ঘদিন যাবত স্থানীয়ভাবে শাড়ী কাপড়েরর সুতা সমিতির সিন্ডিকেট করে তাঁতীদের হয়রানী করে আসছে। ফলে স্থানীয়ভাবে তাঁত শিল্পের বিরুপ প্রভাব পড়েছে। শুধু তাইনয় এ সিন্ডিকেটের মাধ্যমে তারা দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে শাড়ী কাপড় বাকি নিয়ে টাকা নিয়ে তালবাহানা করে এমন অভিযোগ একাধিক ব্যবসায়ীর।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও কালিহাতী থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক(এস আই) আল আমিন জানান, টাকা আত্মসাতের বিষয়ে কামরুজ্জামান নামের এক শাড়ী ব্যবসায়ী মামলা করলে অভিযুক্ত পিতা-পুত্রকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

কেএস 

Link copied!