Amar Sangbad
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

যাদের ছেলে-মেয়ে বিদেশে থাকে তারা মুদ্রা পাচার করে: মিন্টু

নিজস্ব প্রতিবেদক

জুন ৩০, ২০২২, ০৮:৪৭ পিএম


যাদের ছেলে-মেয়ে বিদেশে থাকে তারা মুদ্রা পাচার করে: মিন্টু

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবদুল আউয়াল মিন্টু বলেছেন, যাদের ছেলে-মেয়েরা বিদেশে থাকে তারাই মুদ্রা পাচার করে।  

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) বিকেলে রাজধানীর কাওরান বাজারে একটি কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির তেজগাঁও, শিল্পাঞ্চল ও হাতিরঝিল থানার ছয়টি ওয়ার্ডের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বিএনপির এ নেতা বলেন, আপনারা কী পড়েন না দেশের সম্পদ কীভাবে লুটপাট হচ্ছে? দেশের সম্পদ বিদেশে পাচার হচ্ছে। আর যদি টিভি দেখেন দেখবেন মুদ্রা পাচারের নাম উঠলেই প্রথম আমার নাম, (পাশে বসে থাকা তার ছেলে তাবিথ আউয়ালের দিকে ইশারা করে) তাবিথ সাহেবের নামও আসে। আমি আমার বউ এদের নাম আসে। আরে ভাই আমরাতো এখানে থাকি। তো মুদ্রাটা কার কাছে পাঠাবো? যাদের ছেলে-মেয়ে বিদেশে থাকে মুদ্রা পাচার করলে তারাই করতেছে। আমি প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞাসা করি আপনার কে এদেশে আছে? তাইলে আমি এখানে থাকি মুদ্রা কার কাছে পাঠাবো? আপনাদের কেউ এখানে থাকে না, পাঠালেতো আপনিও পাঠাতে পারেন। অপরাধ দেখার জন্য একটা দূরদৃষ্টি সম্পন্ন জ্ঞান লাগে। আমার কাছে মনে হয় এ সরকার তাদের জ্ঞানও হারিয়ে ফেলেছে।  

তিনি বলেন, আজকে এ দেশের একটা অংশ বন্যাকবিলত। মানুষের হাহাকার, না খেয়ে মরে যাচ্ছে। আর আপনি আলোকসজ্জায় ব্যস্ত। এটা কী দেশের বিরুদ্ধে একটা অপরাধ নয়? আমিতো বলি এটা অপরাধ। এ অপরাধেরও বিচার করা হবে।  

সরকারকে হুঁশিয়ার করে দিয়ে মিন্টু বলেন, আপনারা ভোট চুরি করে ক্ষমতায় আছেন। আবার যদি ভোট চুরি করে ক্ষমতায় যেতে চান সেটা হবে না। সেটা সম্ভব না। সেটা হতে দেওয়া হবে না।  

তিনি বলেন, কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন সবাই আমাকে ক্ষমতা থেকে সরাতে চায় আমার অপরাধ কী? আমার প্রশ্ন আপনি যে বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, হামলা করছেন এটা কী অপরাধ নয়? আপনি যে হেলমেট বাহিনী, এ বাহিনী, সেই বাহিনী দিয়ে অত্যাচার-নির্যাতন করছেন এগুলো কী জনগণের বিরুদ্ধে অপরাধ নয়? যে দর্শনের ওপর ভিত্তি করে এখন থেকে তিন শত বছর আগে নির্বাচন পদ্ধতি আবিষ্কার করা হয় সেই পদ্ধতিকে আপনি ধুলায় নিপতিত করে ভোট ডাকাতির মাধ্যমে মানুষের অধিকার খর্ব করার মাধ্যমে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছেন এটা কী জনগণ, রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কোনো অপরাধ নয়? আপনাকে মনে রাখতে হবে, সব মিথ্যা নাটক বানিয়ে যখন মানুষকে বন্দি করে রাখেন তাহলে আসল অপরাধের জন্য একদিন না একদিন সবাইকে সাজা খাটতে হবে।