Amar Sangbad
ঢাকা রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪,

এজেন্ট ব্যাংকিং

আউটলেট চালুর মাইলফলকে ব্র্যাক ব্যাংক  

মো. মাসুম বিল্লাহ

ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩, ১২:৫২ পিএম


আউটলেট চালুর মাইলফলকে ব্র্যাক ব্যাংক  

দেশব্যাপী চলমান সম্প্রসারণ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ১ হাজার এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট চালুর মাইলফলক অতিক্রম করেছে ব্র্যাক ব্যাংক। 

ব্যাংকের হেড অব অল্টারনেট ব্যাংকিং চ্যানেলস নাজমুর রহিম ঢাকার মিরপুরে এক হাজার তম আউটলেটটি উদ্বোধন করেন।

এ সময় হেড অব এজেন্ট  ব্যাংকিং মো. নাজমুল হাসান ও এজেন্ট  ব্যাংকিং ডিভিশনের মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ব্র্যাক ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে প্রধানত গ্রামীণ ও উপশহর এলাকার ২.৫০ লাখ গ্রাহককে সেবার আওতায় নিয়ে এসেছে। গ্রামীণ এলাকায় ৭৭ শতাংশ আউটলেট নিয়ে ব্র্যাক ব্যাংক-এর এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের গ্রামীণ এলাকায় উপস্থিতি ইন্ডাস্ট্রিতে সবচেয়ে বেশি। এখন এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে প্রতি মাসে ৩৫০,০০০টি লেনদেন সম্পন্ন হয়, যার মোট পরিমাণ ২,০০০ কোটি টাকা।

এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটগুলি ২০২২ সালে এক লাখেরও বেশি বৈদেশিক রেমিট্যান্স বিতরণ করেছে। ২০২২ সালে ৭৫,০০০টি লেনদেনের মাধ্যমে ৪,৭০০ কোটি টাকার বেশি এসএমই ঋণ বিতরণ করেছে। চ্যানেলটি ৯৫০ কোটি টাকার কর্পোরেট বিল সংগ্রহ করেছে। এজেন্ট ব্যাঙ্কিংয়ের মাধ্যমে মোট লেনদেনের ৪০%-এর বেশি লেনদেন প্রচলিত ব্যাঙ্কিং সময়ের বাইরে, সপ্তাহান্তে ও ছুটির দিনে সম্পন্ন হয়েছে।

অ্যাকাউন্ট খোলা, নগদ জমা ও উত্তোলন, ঋণ গ্রহণ, ঋণ পরিশোধ, বিদেশ থেকে পাঠানো টাকা গ্রহণ, ইউটিলিটি বিল প্রদান সহ সব ধরনের ব্যাংকিং সেবা পাওয়া যাচ্ছে এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটে।

এছাড়া ডিপিএস, এফডিআর, দৈনন্দিন লেনদেন, ফান্ড ট্রান্সফার, কর্পোরেট বিল কালেকশন, ক্রেডিট কার্ড বিল, বীমা প্রিমিয়াম, এসএমই লোন বিতরণ ও গ্রহণ, রিটেইল লোনের লিড জেনারেশন সহ যাবতীয় সব সেবা পাওয়া যায়।

২০১৮ সালে এজেন্ট ব্যাংকিং চালু করার পর থেকে এ নেটওয়ার্ক দ্রুত সম্প্রসারণ অব্যাহত রেখেছে ব্র্যাক ব্যাংক। ইতিমধ্যেই দেশের ৬৪টি জেলার ৪১৯টি উপজেলায় পৌঁছে গেছে।

‘এজেন্ট অ্যাপ’ এর মাধ্যমে এজেন্ট পার্টনাররা/স্টাফরা আউটলেটের বাইরেও গ্রাহকের ঘরে ঘরে গিয়ে ব্যাংকিং সেবা প্রদান করতে পারছেন, যা এ ইন্ডাস্ট্রিতে ব্র্যাক ব্যাংক-কে অন্যদের থেকে এগিয়ে রেখেছে।

এজেন্ট পয়েন্টে টাকা জমা দেয়া মাত্র তা অ্যাকাউন্টে জমা হয় এবং তা ৩৩০টি এটিএম, ১৮৭টি শাখা ও অনলাইন ব্যাংকিং ‘আস্থা অ্যাপ’এর সাহায্যে তোলা যায়। শাখায় যেসব গ্রাহক অ্যাকাউন্ট খুলেছেন তারা বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন্স সম্পন্ন করে এজেন্ট আউটলেটেও সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

এ মাইলফলক অর্জন সম্পর্কে ব্র্যাক ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম আর. এফ. হোসেন বলেন, ‘ব্যাংকিং সুাবধার বাইরে থাকা মানুষদেরকে ব্র্যাক ব্যাংক আনুষ্ঠানিক আর্থিক বলয়ের আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা একটি বিশাল জনগোষ্ঠীকে ব্যাংকিংয়ের মূলধারায় অন্তর্ভুক্ত করতে ভূমিকা পালন করছে এজেন্ট ব্যাংকিং। এজেন্ট ব্যাংকিং উত্তরোত্তর নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে এবং অর্থনীতি বিশেষ করে গ্রামীণ অর্থনীতির উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখছে। আগামী বছরগুলোতে দেশের প্রতিটি প্রান্তে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের নেটওয়ার্ক ছড়িয়ে দিতে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রাখবো।’

এআরএস
 

Link copied!