Amar Sangbad
ঢাকা বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২৪,

আসছে গরমে আপনার এসি কি পুরোপুরি প্রস্তুত!

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪, ০৫:১৫ পিএম


আসছে গরমে আপনার এসি কি পুরোপুরি প্রস্তুত!
ছবি: সংগ্রহ

অবশেষে শীতকে বিদায় জানানোর সময় এসে গেছে; ধীরে ধীরে বাড়তে থাকা তাপমাত্রা নিয়ে মাথার ওপর আবার হাজির হচ্ছে সূর্য! উষ্ণ বসন্ত আর গরমের ছোঁয়ায় বিদায় নিতে শুরু করেছে হিমেল বাতাস। আর এই সময় এয়ার কন্ডিশনারের মতো হোম অ্যাপ্লায়েন্স ঠিকঠাকভাবে কাজ করছে কি না তা আগেই দেখে নেয়া দরকার। শীতের এই দীর্ঘ বিরতির পর সামনের গরমে এসির ঠিকভাবে কাজ করার জন্য তাই আগেই কিছু যত্নআত্তি নেয়া প্রয়োজন।

আমরা আজ জানব কীভাবে গ্রীষ্মের তাপপ্রবাহ শুরু হওয়ার আগেই এসিকে ঠিকভাবে প্রস্তুত করে নেয়া যায়:

ভেতরে-বাহিরে পরিষ্কার করে নিন

এসির সক্ষমতা সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে হলে এটিকে ভেতরে বাহিরে দুই দিকেই সমানভাবে পরিষ্কার করে নেয়া দরকার। এক্ষেত্রে, প্রথমেই এসির ভেতরে পরিষ্কার করে নিতে হবে। সবার আগে অ্যাক্সেস প্যানেল বের করে নিয়ে এরপর ইভ্যাপোরেটর কয়েল পরিষ্কার করতে হবে। সময়ের সাথে সাথে ইভ্যাপোরেটর কয়েলের সঙ্গে ধুলা-ময়লা লেগে থাকতে পারে। এরপর, পানি ও ময়লা আটকে থাকতে পারে ড্রেইন প্যান ও ড্রেইন পাইপের এমন জায়গাগুলো পরিচ্ছন্ন করে নিতে হবে।

একবার ভেতরের অংশ পরিচ্ছন্ন করা হয়ে গেলে, অ্যাক্সেস প্যানেল রিইনস্টল করে নিয়ে তারপর বাইরের অংশ পরিস্কারের কাজ শুরু করতে হবে। এক্ষেত্রে, প্রথমেই এসি গ্রিল খুলে নিতে হবে। এরপর পাখায় লেগে থাকা ধূলিকণার অংশ বা কম্প্রেসর ইউনিটের বাদবাকি জায়গাগুলো হোস পাইপ দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। এরপর, কনডেনসার কয়েল পরিচ্ছন্ন করতে হবে ও বাইরে থেকে জমা হওয়া ধুলা-ময়লা পরিষ্কার করে নিতে হবে। এসির বাইরের অংশ পরিস্কারের ক্ষেত্রে পানি ও সাবানের হালকা মিশ্রণ ব্যবহার করা যেতে পারে।

আমাদের মনে রাখতে হবে, এসি পরিষ্কার রাখা হলে তা বিদ্যুৎ সাশ্রয় করে, ঘরের সবদিক সমানভাবে ঠান্ডা করে ও দীর্ঘসময় টিকে থাকার নিশ্চয়তা দেয়।

ফিল্টার পরিষ্কার বা পরিবর্তন করে নিন

এসির ফিল্টারে ধুলা-ময়লা জমে আটকে যাওয়া শুরু হলেই তা পরিষ্কার বা পরিবর্তন করে নিন। সবচেয়ে ভালো হয় বছরে কমপক্ষে দুইবার ফিল্টার পরিবর্তন করে নিতে পারলে। অপরিচ্ছন্ন ফিল্টার এসির বাতাসকে আটকে দিতে পারে, এমনকি এর কার্যকারিতাও কমিয়ে দিতে পারে। আবার এই ধুলা-ময়লা আপনার ঘরের ভেতরেও ছড়িয়ে পড়তে পারে। আর একারণেই ফিল্টার ঠিকভাবে কাজ করছে কি না, তা নিয়মিত দেখা ও মাঝেমাঝেই এটি কুসুম গরম পানি ও সাবানের মিশ্রণে হালকা কাপড় বা ব্রাশ ভিজিয়ে পরিষ্কার করে নেয়া প্রয়োজন।

থার্মোস্ট্যাট ঠিকভাবে কাজ করছে বা কোনো লিক আছে কি না

এসিতে কোনো প্রকার লিক থাকলে তা খুবই অস্বস্তিদায়ক অনুভূতি নিয়ে আসতে পারে। তাই গরমের শুরুতেই এসি চালুর আগে কোথাও কোনোরকম লিক আছে কি না তা দেখে নিন। থার্মোস্ট্যাটও একদম ঠিকঠাকভাবে চলছে কি না দেখুন। এসির পারফর্ম্যান্স ও বাকি সব খুঁটিনাটি ঠিকভাবে কাজ করছে কি না তা জানতে এ বিষয়ে দক্ষ কাউকে দেখিয়ে নেয়া প্রয়োজন। এক্ষেত্রে স্যামসাংয়ের মতো নানান ব্র্যান্ড সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও সার্ভিসিং অপশন সহ বাজারে বিভিন্ন ধরনের এসির মডেল নিয়ে এসেছে। বিশেষ করে দীর্ঘদিন টিকবে এমন এসির ক্ষেত্রে খুব সহজেই বিক্রয়-পরবর্তী সেবা পাওয়া যাবে এমন মডেল বাছাই করা উচিত।

এসি সার্ভিসিংয়ের ক্ষেত্রে কোনো অবহেলা নয়

এই গরমে একমাত্র এসিই পারে আপনার ঘরের ভেতরের পরিবেশকে আরামদায়ক রাখতে। আর তাই গ্রীষ্মকালের শুরুতেই এসি সার্ভিসিং করানোর জন্য বুকিং দিন। নতুন করে এসি লাগানো হোক বা কিছু পরিবর্তন করা হোক, ঠিক করা হোক বা ঠিকঠাক আছে কি না তা দেখে নেয়া হোক; গ্রীষ্মের দাহ শুরু হওয়ার আগেই দক্ষ কাউকে দিয়ে এসিটি দেখিয়ে নিন।

দক্ষ ও পেশাজীবী টেকনিশিয়ান কাউকে দিয়ে একবার এসি দেখিয়ে নিলে তা একদিকে যেমন সর্বোচ্চ পারফর্ম্যান্স দিবে, অন্যদিকে তেমনি টিকবেও অনেক দিন; এতে করে পয়সাও বাঁচবে, আবার একইসাথে যেকোনো সময় এসি ঠিকঠাক করার ঝামেলা থেকেও মুক্ত থাকা যাবে। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা এসির পারফরমেন্স ঠিক আছে কি না যাচাই করার এখনই সঠিক সময়। আর যতো আগে তা দেখবেন, ততোই মঙ্গল!

এআরএস

Link copied!