Amar Sangbad
ঢাকা রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯

কাতার বিশ্বকাপ

‘বিয়ার’ পান না করেও বেঁচে থাকা যায়: ফিফা প্রেসিডেন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

নভেম্বর ১৯, ২০২২, ০৬:০৫ পিএম


‘বিয়ার’ পান না করেও বেঁচে থাকা যায়: ফিফা প্রেসিডেন্ট

দরজায় কড়া নাড়ছে বিশ্বকাপ। সারা পৃথিবীর ফুটবলপ্রেমীদের মধ্যে বাড়ছে উত্তেজনার জ্বর! রোববার (২০ নভেম্বর) মধ্যপ্রাচ্যের ক্ষুদ্রতম দেশটিতে শুরু হতে যাচ্ছে দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ। এর মধ্যে বিশ্বকাপের আটটি ভেন্যুতেই বিয়ার বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে কাতার সরকার ও বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

বিশ্বকাপ শুরুর আর মাত্র দুই দিন আগেই পুর্বের সিদ্ধান্ত থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে আয়োজক দেশ কাতার ও ফিফা। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) বিশ্বকাপের আটটি স্টেডিয়ামে আশেপাশে বিয়ার কেনাবেচা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে তারা।

বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতারের সঙ্গে ‘আলোচনার’ পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানায় ফিফা। কারণ এটি একটি ইসলামী রাস্ট্র। যেখানে এমনিতেই এলকোহল গ্রহণের উপর কঠোর বিধিনিষেধ রয়েছে। তাদের ‘ইউটার্ন’ মেনে নিতে পারেননি ইউরোপিয়ানরা।

তাই কাতারসহ তোপের মুখে পড়তে হয় ফিফাকেও। তবে সেই সব সমালোচকদের একহাত নিয়েছেন ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।

বিশ্ব নানা প্রান্ত থেকে মানুষ দলে দলে পা রাখছেন কাতারে। ‘ফ্যান জোনে’ যদিও বিয়ার কিনতে পারবেন তারা। অবশ্য বিয়ার হাতে নিয়ে সমর্থকদের খেলা উপভোগ করার চিত্রটা দেখা যাবে না এবারের বিশ্বকাপে। তবে সেজন্য কেউ মারা যাবে না বলছেন ইনফান্তিনো।

শনিবার (১৯ নভেম্বর) সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, দিনে তিন ঘণ্টা বিয়ার পান না করেও বেঁচে থাকা যায়। একই (স্টেডিয়ামে বিয়ার নিষিদ্ধ) নিয়ম ফ্রান্স, স্পেন, পর্তুগাল ও স্কটল্যান্ডেও আছে। কাতার মুসলিম দেশ বলেই কি বিষয়টা বড় হয়ে গেল? আমি জানি না কেন। আমরা চেষ্টা করেছি এবং সে কারণেই শেষ মুহূর্তে নিয়মে পরিবর্তন এনেছি। ’

‘বিয়ার’ নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত ফিফা ও কাতারের যৌথভাবে নেওয়া। এমনটাই জানান ইনফান্তিনো, ‘একটা বিষয় প্রথমে নিশ্চিত করতে চাই, এই বিশ্বকাপের সবগুলো সিদ্ধান্ত কাতার ও ফিফা যুগ্মভাবে নিয়েছে। 

কাতারে অনেক ফ্যান জোন থাকবে যেখানে আপনি অ্যালকোহল কিনতে এবং পান করতে পারবেন। যদি এটি বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় ইস্যু হয়, তাহলে তৎক্ষণাৎ পদত্যাগ করে সমুদ্র-সৈকতে আরামে দিন কাটাব আমি। ’

টিএইচ

Link copied!